শিক্ষা ও শিক্ষার্থী

শিক্ষার্থীদের সঙ্গে এই নির্মমতা কেন?

ঢাকার সাতটি কলেজের শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ সমাবেশে গত বৃহস্পতিবার পুলিশের হামলা উদ্বেগের বিষয় অবশ্যই এই কারণে যে তাতে শিক্ষার্থীরা কেবল আহত হয়েছেন তা নয়, একজন শিক্ষার্থী এমনভাবে আহত হয়েছেন যে তাঁর চোখ হারাতে হবে বলেই মনে হচ্ছে। কিন্তু তার চেয়েও উদ্বেগের বিষয় হচ্ছে শিক্ষাসংক্রান্ত ন্যায্য দাবি নিয়ে যখন শিক্ষার্থীরা পথে নামতে…

Continue reading

বইমেলা বইয়ের মেলা নয়, সমাজের জানালা

  অমর একুশের গ্রন্থমেলা এখন আর বাংলাদেশের একমাত্র বই মেলা নয়, কিন্ত এই বই মেলা যে সবচেয়ে বড়, এবং দেশের প্রধান বই মেলা সেকথা অনস্বীকার্য। এর কারণ একাধিক। প্রথমত এই মেলার একটি দীর্ঘ ইতিহাস রয়েছে। একার্থে এই বই মেলার সূচনা হিসেবে আমরা ১৯৭২ সালে মুক্ত্রাধারার স্বত্বাধিকারী চিত্তরঞ্জন সাহার একক উদযোগকে…

Continue reading

কেন এবং কিভাবে একজন মানুষ জঙ্গী হয়ে ওঠে?

একজন মানুষের জঙ্গি হয়ে ওঠার কারণ ও প্রক্রিয়া নিয়ে বিশ্বব্যাপী নানা গবেষণা হয়েছে ও হচ্ছে। এর রাজনৈতিক ও সামাজিক দিক যেমন রয়েছে, তেমনি ব্যক্তির মনোজাগতিক অবস্থাও বিবেচ্য। তরুণদের জঙ্গিবাদে আকৃষ্ট হওয়ার এই বৈশ্বিক সমস্যা বাংলাদেশেও গুরুতর আকার ধারণ করেছে। বিশ্ব প্রেক্ষাপট ও বাংলাদেশের তরুণদের জঙ্গিবাদে আকৃষ্ট হওয়া বা র‍্যাডিক্যালাইজেশনের প্রক্রিয়া…

Continue reading

তরুণদের ওপর নির্বিচার নজরদারি?

দেশে জঙ্গিবাদ মোকাবিলায় বিভিন্ন কৌশল নিয়ে আলাপ-আলোচনা হচ্ছে; শোনা যাচ্ছে বিভিন্ন ধরনের প্রস্তাব। এ পর্যন্ত যেসব প্রস্তাব শোনা গেছে তার ভেতরে পরিবারের দায়িত্ব থেকে শুরু করে প্রতিষ্ঠানের দায় এবং শিক্ষকের ভূমিকা কিছুই বাদ আছে বলে মনে হয় না। তরুণদের ব্যাপারে পিতামাতার করণীয় বিষয়ে রাজনীতিবিদ থেকে মনস্তত্ত্ববিদ, সবাই কিছু না কিছু…

Continue reading

জঙ্গীবাদ ও প্রাইভেট ইউনিভার্সিটি বিতর্ক : জঙ্গীবাদের কারণ অনুসন্ধান ও বিশ্লেষণ

আমার এই লেখাটির তিনটি অংশ, প্রথম অংশে আমি জঙ্গীবাদের কারণ অনুসন্ধান ও বিশ্লেষণ করবো। এই পর্বে বাংলাদেশে জঙ্গীবাদের প্রাসঙ্গিক ড্রাইভার বা চালক নিয়ে বিশ্লেষণ করা হবে। দ্বিতীয় অংশে জঙ্গীবাদ ও এর সাথে প্রাইভেট ইউনির্ভাসিটি নিয়ে যে বিতর্ক শুরু হয়েছে তার উপর আলোকপাত করবো। তৃতীয় ও শেষ অংশে জঙ্গীবাদের সাম্প্রতিক আলোচনা…

Continue reading

‘পারদের মতো ভারি কিন্ত খুবই এক অস্থির সময়ের’ কবি

কবি রফিক আজাদের সঙ্গে আমাদের পরিচয় ১৯৭৫-৭৬ সালের দিকে, সম্ভবত সায়ীদ স্যারের (আবদুল্লাহ আবু সায়ীদ) বাসায়, কন্ঠস্বর-কেন্দ্রিক আড্ডায়। স্যারের গ্রীন রোডের বাসায় তখন সেই সময়ের প্রতিষ্ঠিত কবি-লেখকদের সপ্তাহান্তের নিয়মিত আড্ডায় আমরা লেখক-যশপ্রার্থীরা রবাহুত ভাবে উপস্থিত হলেও অনাহুত বলে বিবেচিত হইনি। আমরা মানে রুদ্র (রুদ্র মুহম্মদ শহীদুল্লাহ), কামাল (কামাল চৌধুরী), ইফতেখার…

Continue reading